আফগানিস্তানে নারী শিক্ষায় নিষেধাজ্ঞা তালেবানদের

আফগানিস্তানে নারী শিক্ষায় নিষেধাজ্ঞা তালেবানদের

শেয়ার করুন

Afganistan Taliban।। আন্তর্জাতিক ডেস্ক ।।

আফগানিস্তানে তালেবানের ক্ষমতা দখলের তিন মাসের মাথায়ই নারী শিক্ষাসহ আরো কয়েকটি বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে তালেবান। যদিও এ নিষেধাজ্ঞা আগেও ছিল, তবে এবারও নতুন করে ক্ষমতায় এসে আরও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হলো।

আফগানিস্তানের নীতিনৈতিকতা-বিষয়ক মন্ত্রণালয় প্রমোশন অব ভার্চু অ্যান্ড প্রিভেশন অব ভাইস আদেশ জারি করে আটটি নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে।

ভয়েস অব আমেরিকার খবরে বলা হয়, এ আদেশ অনুসারে, কোনো নারী চলচ্চিত্র বা নাটকে অভিনয় কিংবা বিনোদনমূলক কোনো অনুষ্ঠান করতে পারবেন না। এছাড়া কোনো নারী সাংবাদিক টেলিভিশনের পর্দায় কথা বললেও অবশ্যই তাঁকে হিজাব পরতে হবে।

যুক্তরাষ্ট্রের আরেক গণমাধ্যম সিএনএনের খবরে বলা হয়েছে, তালেবানের ওই আদেশে বলা হয়েছে, টেলিভিশনে যদি কোনো পুরুষও উপস্থিত হন, ‘সঠিক পোশাক’ পরতে হবে। তবে এই সঠিক পোশাক বলতে কী বোঝানো হয়েছে, তার কোনো ব্যাখ্যা দেওয়া হয়নি।

সিএনএন বলছে, নতুন যেসব নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে, সেগুলো মূলত গণমাধ্যম বা সম্প্রচার মাধ্যমগুলোর জন্য। তালেবান ক্ষমতায় আসার পর এই প্রথম গণমাধ্যমের ওপর কোনো নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হলো।

ভয়েস অব আমেরিকার খবরে আরো বলা হয়, তালেবান শরিয়াহ আইনের আলোকে এসব নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। কিন্তু প্রমোশন অব ভার্চু অ্যান্ড প্রিভেশন অব ভাইস মন্ত্রণালয় এর উল্টো কথা বলছে। ‘অনৈতিক প্রচার’ থামাতে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া ‘শরিয়াহ ও আফগানিস্তানের যে মূল্যবোধ’, তার বিরুদ্ধে যে প্রচার চলছে, তা বন্ধে এমন পদক্ষেপ। ভয়েস অব আমেরিকা বলছে, নারী অধিকার খর্ব করার ক্ষেত্রে এটি সর্বশেষ পদক্ষেপ।

নতুন এসব নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেই ক্ষান্ত হয়নি তালেবান সরকারের ওই মন্ত্রণালয়। এসব নিষেধাজ্ঞা মেনে চলতে আফগানিস্তানের গণমাধ্যমগুলোকে আহ্বান জানানো হয়েছে। তালেবান বলছে, বিদেশ ও দেশে নির্মিত চলচ্চিত্রগুলো বিদেশি সংস্কৃতি, ঐতিহ্য ও অনৈতিকতার প্রচার চালায়। এসব প্রচার করা উচিত হবে না।

পাশাপাশি আফগানিস্তানের টেলিভিশনে কৌতুকনির্ভর অনুষ্ঠান প্রচারেও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে তালেবান সরকার। প্রমোশন অব ভার্চু অ্যান্ড প্রিভেশন অব ভাইস মন্ত্রণালয় বলেছে, টেলিভিশনে ইসলামের নবীদের নিয়ে কোনো অনুষ্ঠান প্রচার করা যাবে না।