আন্তর্জাতিক বিমান চলাচলের ক্ষেত্রে আরোপিত বিধিনিষেধ আরও শিথিল করেছে

আন্তর্জাতিক বিমান চলাচলের ক্ষেত্রে আরোপিত বিধিনিষেধ আরও শিথিল করেছে

শেয়ার করুন
bimanbondor

সিভিল এভিয়েশন অথরিটি আন্তর্জাতিক বিমান চলাচলের ক্ষেত্রে তাদের আরোপিত বিধিনিষেধ আরও শিথিল করেছে। আজ ১ মে হতে কার্যকর হওয়া নতুন নির্দেশনা মোতাবেক….

ভারত, সাইপ্রাস, দক্ষিণ আফ্রিকা, ওমান, ইরান, ব্রাজিলসহ মোট ১২ টি দেশ হতে যাত্রা শুরু করে কেউ সরাসরি বা অন্য কোন দেশে ট্রানজিট নিয়ে বাংলাদেশে আসতে পারবেন না। বাংলাদেশ থেকেও কেউ ঐ দেশগুলিতে যেতে পারবেন না৷
তবে প্রবাসী বাংলাদেশি বা বাংলাদেশি নাগরিকদের মধ্যে যারা বিগত ১৫ দিনের মধ্যে ঐ ১২ টি দেশের কোন দেশে ভিজিটে গিয়েছেন, তারা সরকারের বিশেষ অনুমতি প্রাপ্তিসাপেক্ষে বাংলাদেশে ফিরতে পারবেন। তবে এক্ষেত্রে বাংলাদেশে পৌছার পর তাদেরকে সরকার অনুমোদিত কোন হোটেলে নিজ খরচে বাধ্যতামূলকভাবে ১৪ দিন প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে৷
বিশেষভাবে উল্লেখ্য যে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে এয়ার বাবল চুক্তির আওতায় যাত্রীবাহী ফ্লাইট পরিচালনা কার্যক্রম পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত বন্ধ থাকছে৷
 বাহরাইন, কাতার ও কুয়েত হতে আগত যাত্রীদের বাংলাদেশে পৌছানোর পর সরকার নির্ধারিত হোটেলে নিজ খরচে ০৩ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। ঐসব দেশ থেকে যাত্রা শুরুর আগেই হোটেল বুকিং দিয়ে আসতে হবে এবং চেক ইনের সময় যাত্রীকে এয়ারলাইন্স কর্মকর্তাদের কাছে হোটেল বুকিং এর প্রমাণপত্র দেখাতে হবে। ০৩ দিনের হোটেল কোয়ারেন্টাইন শেষে তাদের কোভিড টেস্ট করানো হবে। ফলাফল নেগেটিভ হলে তারা পরবর্তী ১১ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন৷
তুরস্ক, ইতালি, জার্মানি, ফ্রান্স, নেদারল্যান্ড, স্পেন, সুইডেন, গ্রীস, হাঙ্গেরীসহ  আর ২৩ টি দেশ থেকে যাত্রা শুরু করে বাংলাদেশে আসা যাত্রীদের ঢাকায় পৌছার পর বাধ্যতামূলকভাবে নিজ খরচে ১৪ দিন সরকার নির্ধারিত হোটেলে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে৷ হোটেল বুকিং এর প্রমাণপত্র চেকইনের সময় দেখাতে হবে।
 অন্যসব দেশ থেকে যাত্রা শুরু করে বাংলাদেশে আসা যাত্রীরা ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন, যদি দেশে আসার পর তাদের শরীরে কোভিডের কোন লক্ষণ দেখা না যায়৷
আকাশযাত্রা শুরুর ৭২ ঘন্টা বা তারও কম সময় বাকি থাকতে নমুনা দিয়ে পিসিআর করিয়ে কোভিড নেগেটিভ রিপোর্ট নিয়ে ফ্লাইটে উঠতে হবে।