পাটুরিয়ায় ফেরি সংকট কাটছেই না, বাড়ছে যানজট ও ভোগান্তি

পাটুরিয়ায় ফেরি সংকট কাটছেই না, বাড়ছে যানজট ও ভোগান্তি

শেয়ার করুন
Paturia
নিজস্ব প্রতিবেদক।।
দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের প্রবেশদ্বার দৌলতদিয়া রুটে রোজ দীর্ঘ যানজট ও যাত্রী ভোগান্তি হলেও নিরসনের কোনো উদ্যোগ নেই। ফলে কার্যত দুর্ভোগের স্থান হিসেবে দাঁড়িয়েছে এই রুটে।
সংশ্লিষ্টরা জানান, এ ঘাট দিয়ে প্রতিদিন প্রায় তিন থেকে চার হাজার যানবাহন পদ্মা নদী পার হয়ে রাজধানীতে প্রবেশ করে। বর্তমানে ফেরি ও ঘাট সংকট দেখা দিয়েছে দৌলতদিয়ায়। যানবাহনের তুলনায় ফেরির সংখ্যা আগে থেকেই কম। এতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা মহাসড়কে অপেক্ষা করতে হচ্ছে যানবাহনগুলোকে। ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে যাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকদের।
পদ্মা নদী পার হয়ে রাজধানী থেকে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে যাওয়া কিংবা ওইসব অঞ্চল থেকে রাজধানীতে আসার পথ প্রধানত দুটি। একটি কাঁঠালিয়া-শিমুলিয়া নৌরুট, আরেকটি দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুট। পদ্মাসেতুর নির্মাণ কাজের কারণে কাঁঠালিয়া-শিমুলিয়া রুট এখন বন্ধ আছে। ফলে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া রুটে যানবাহনের চাপ বেড়েছে।
গাড়ির চাপ বাড়লেও ফেরির সংখ্যা বাড়েনি। বরং আগের চেয়ে কম ফেরি নিয়ে চলছে যানবাহন পারাপার। আগে এই রুটে ২০টি ফেরি চলাচল করত, এখন ১৬টি চলাচল করছে।
বুধবার (১৯ জানুয়ারি) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত দৌলতদিয়া ফেরিঘাট এলাকায় দেখা গেছে, ফেরিঘাটের জিরো পয়েন্ট থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের তিন কিলোমিটার এলাকা পর্যন্ত তৈরি হয়েছে যানবাহনের সারি।
বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া ঘাট কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে, দৌলতদিয়ায় ৭টি ফেরিঘাটের মধ্যে মাত্র ৪টি ঘাট বর্তমানে চালু রয়েছে। নাব্যতা সংকটসহ নানা কারণে বন্ধ রয়েছে ৩টি ফেরিঘাট। এ ছাড়া এ রুটে ফেরি চলাচল করছে ১৬টি। ৪টি ফেরি যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে মেরামতে রয়েছে। এর মধ্যে ৩টি রো রো (বড়) ফেরি ২ মাস ধরে নারায়ণগঞ্জ ডকইয়ার্ডে মেরামত করা হচ্ছে।
এখানে স্বাভাবিক সময়ে যানবাহন পারাপারের জন্য অন্তত ২০-২২টি ফেরি সচল থাকা দরকার। কিন্তু বাড়তি চাপ থাকার পরও ফেরির সংখ্যা কম। এ বিষয়ে অনেক দিন ধরেই কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না কর্তৃপক্ষ।
বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া ঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক খোরশেদ আলম জানান, তিন মাস আগেও দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে যানবাহন ও যাত্রী পারাপারের জন্য ১২টি রো রো (বড়) ফেরিসহ মোট ২১টি ফেরি ছিল। এখন ছোটবড় মিলিয়ে ১৬টি ফেরি আছে। ফলে দৌলতদিয়া প্রান্তে প্রায় প্রতিদিনই তীব্র যানজট সৃষ্টি হচ্ছে।