ঈদে এটিএন বাংলায় তুর্কি ড্রামা সিরিয়াল “রেহানা”

ঈদে এটিএন বাংলায় তুর্কি ড্রামা সিরিয়াল “রেহানা”

শেয়ার করুন

Rehana

এটিএন বাংলায় ঈদ উল আযহার বিশেষ অনুষ্ঠানমালায় প্রচার হবে বাংলায় ডাবিংকৃত জনপ্রিয় তুর্কি ড্রামা সিরিয়াল ‘রেহানা’। ঈদের দিন থেকে ঈদের ৭ম দিন পর্যন্ত সন্ধ্যা ৫.৫০ মিনিটে প্রচার হবে সিরিয়ালটি।
ধারাবাহিকটি সামাজিক প্রেক্ষাপটে নির্মিত ও তুরস্কসহ বিভিন্ন দেশে দর্শকপ্রিয় হয়েছে। নাটকের মূল উপজীব্যই হচ্ছে সমাজের মধ্যবিত্ত মানুষের সামাজিক টানাপোড়েন ও নিত্যদিনকার ঘটনাবলী। তুরস্কের প্রেক্ষাপটে নির্মিত হলেও ধারাবাহিকটির ঘটনাক্রম ও মূলউপজীব্য বিষয়গুলো আমাদের দেশের সংস্কৃতি ও আর্থসামাজিক প্রেক্ষাপটের সাথে সাজুয্যপূর্ণ।

মিডিয়াত শহরের দুটি পরিবারের তিন প্রজন্মের ভালোবাসা আর যন্ত্রনার গল্প রেহানা। প্রতিটি চরিত্রের নিঃসঙ্গতা আর হৃদয়ের গহীনে লালন করা ভালোবাসার কথা বলে যায় সিরিজটি। আছে হৃদয় ভাঙ্গনের হাহাকার, সন্তান হারানোর ব্যাকুলতা, বহুবছরের পরিচয় এক নিমিষে হারিয়ে ফেলা, অতীতের নির্মমতা, আত্মোপোলব্ধি, আরও অনেক কিছু। আর সবকিছুকে ছাপিয়ে আছে দুটি নিষ্পাপ হৃদয়ের অদম্য ভালোবাসার পরিণতি।
রেহানা, সওদাগর বংশের সদ্য তরুণী। বাবা হাসানের রাজকন্যা, মা জোহরার চোখের মণি, আর ছোট বোন মুনের আবদারের খনি। কিন্তু তবু সে সুখী নয় তাদের বিশাল অট্টালিকায়। কারণ এই তিনজন ছাড়া পরিবারের আর কেউ ভালোবাসেনা তাকে। ছোটবেলা থেকে দাদার তিরস্কার আর ভর্ৎসনা শুনে ক্লান্ত সে। দাদার এই বাডি তার কাছে জেলখানার মতো। সে দুচোখে হাজারও স্বপ্ন নিয়ে অপেক্ষা করে তার ভালোবাসার রাজপুত্রের জন্য, যে এই বাড়ি থেকে তাকে মুক্ত করে নিয়ে যাবে স্বপ্নের ভুবনে।
অন্যদিকে, মিরান আহমেদ প্রতিশোধের নেশায় ছটফট করা এক যুবক। যার জীবনের একমাত্র লক্ষ তার মা- বাবার খুনের প্রতিশোধ নেয়া। এই প্রতিশোধ স্পৃহা উজ্জীবিত রাখতে তার দাদী আজিজা সারাক্ষণ তাকে নানাভাবে কুপরামর্শ দেয়। কারণ আজিজা ভুলতে পারে না সে হারিয়েছে তিনটি সন্তান। মিরানের হৃদয়ে মায়া- মমতার কোন স্থান নেই, নেই কোন উষ্ণতা। তাকে আজিজা ব্যবহার করে কাঠের পুতুলের মতো। আজিজাকে সাহায্য করে মিরানের চাচী আর চাচীর মেয়ে।
হাসান সওদাগরের উপর প্রতিশোধ নিতেই রেহানাকে বিয়ে করে মিরান, ব্যবসার পার্টনার হয়ে দখল করে নেয় সওদাগরদের সব সম্পত্তি। বিয়ের পরদিন ফেলে আসে রেহানাকে ছোট এক কুটিরে। কিন্তু রেহানার জন্য তার হৃদয়ের গোপনে কোথায় যেন ভালোবাসা জন্মে যায়। রেহানাকে যতবার কষ্ট দেয় মিরান, প্রতিবার সেই আঘাতে তার হৃদয়ও ছিন্নভিন্ন হয়ে যায় । তবু তার দাদীর প্ররোচনায় সে রেহানাকে কষ্ট দিতে থাকে। অন্যদিকে রেহানাও যত ভুলে যেতে চায় মিরানকে, ততই ভালোবেসে ফেলে। এই টানাপোড়নের মধ্য দিয়েই গল্প এগিয়ে যেতে থাকে অন্য আরও অনেক গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রের অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে।
একসময় জয় হয় ভালোবাসার। দুই পরিবারের তুমুল শত্রুতা উপেক্ষা করে তারা দুজনে ভালোবাসার বন্ধনে আবদ্ধ হয়। শুরু হয় নতুন অধ্যায়ের। দুজন মিলে খুঁজে বের করতে থাকে এই প্রতিশোধের পেছনের সত্যিকারের কারণ। একে একে উম্মোচিত হয় মাটি চাপা পড়া অতীত। যে অতীত নাড়িয়ে দেয় রেহানা আর মিরানের জীবনের ভিত্তি। তাদের জন্ম, বেড়ে ওঠা, পরিবার সবকিছু মিথ্যা হয়ে যায় চোখের পলকে। তবু তারা থেমে যায় না, তাদের নিখাদ ভালোবাসার কারণে নির্মম অতীতের প্রবল ¯্রােতেও তারা টিকে থাকে দুজনে দুজনার জন্য, পরিবারের জন্য। ভালোবাসার কাছে পরাজিত হয় প্রতিশোধের স্পৃহা।
উল্লেখ্য, ড্রামা সিরিয়াল ‘রেহানা’ ঈদের পর আগামী ২৫ জুন ২০২৪ থেকে প্রতি মঙ্গল, বুধ ও বৃহস্পতিবার রাত ৮.৪০ মিনিটে নিয়মিতভাবে প্রচার হবে।