এবারের রমজানে খাবার সংরক্ষণে স্যামসাং রেফ্রিজারেটর

এবারের রমজানে খাবার সংরক্ষণে স্যামসাং রেফ্রিজারেটর

শেয়ার করুন

Samsung

বিজনেস ডেস্ক।।

গত কয়েক বছর কোভিড-১৯ এর কারণে রিয়ানা ও সামিকে রমজান মাস লকডাউন পরিস্থিতির মাঝেই পালন করতে হয়। কিন্তু, এ বছর পরিস্থিতি বদলে গেছে; আর তাই তারা এবার খানিকটা ভিন্নভাবে রমজান মাস পালনের পরিকল্পনা গ্রহণ করে। রিয়ানা ও সামি দু’জনাই কাজ করেন; তাই এ পরিস্থিতিতে তারা স্বাস্থ্যকর ও সতেজ খাদ্য সংরক্ষণের পদ্ধতি নিয়ে খানিকটা চিন্তায় পড়ে যান। অনেক চিন্তা-ভাবনা ও বন্ধুদের পরামর্শ নিয়ে দীর্ঘক্ষণ খাবার সংরক্ষণ ও সতেজ রাখতে বাসার জন্য নতুন একটি রেফ্রিজারেটর কিনে ফেলেন তারা।

দুর্গন্ধ আমাদের ক্ষুধাকে দমিয়ে ফেলে; তাই রেফ্রিজারেটরের ভেতরে সতেজ গন্ধ নিশ্চিত করতে আমাদের বিশেষ মনোযোগ দিতে হবে। স্যামসাংয়ের আরটি৪৭ রেফ্রিজারেটরে ‘টুইন কুলিং প্লাস’ প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে, যেখানে ফ্রিজ ও ফ্রিজার কম্পার্টমেন্ট উভয়ের জন্যই রয়েছে ‘ডাবল ইভাপোরেটর’ ও ডাবল কুলিং ফ্যান ফিচার; যা কম্পার্টমেন্টগুলোকে পৃথকভাবে ঠন্ডা করে এবং ফ্রিজার থেকে ফ্রিজে গন্ধ ছড়ানোর বিষয়টিকে প্রতিরোধ করে।

হিমায়িত খাদ্য বা ফ্রোজেন ফুড থাকে স্বাদযুক্ত ও গন্ধহীন। এই ফিচারগুলো ৭০ শতাংশ পর্যন্ত আর্দ্রতা বজায় রেখে খাবারকে ১৫ দিন সময় পর্যন্ত সতেজ রাখে। ফ্রিজে আর্দ্রতা-পূর্ণ সতেজতা, সুস্বাদু, গন্ধমুক্ত হিমায়িত খাবারের মাধ্যমে যে কোন ব্যক্তিই এই রমজানে ইফতারের জন্য স্বাস্থ্যকর ও সতেজ খাবার সংরক্ষণের বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারবেন!

চাহিদা অনুযায়ী আরটি৪৭ রেফ্রিজারেটরে ফাইভ কনভারসন মোড রাখা হয়েছে রমজান মাসে ইফতার ও বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশ নেয়ার জন্য মানুষের বাসার বাইরে থাকার প্রবণতা দেখায়; তাই, এ সময় ফ্রিজের তুলনায় ফ্রিজারের প্রয়োজনীয়তা বেড়ে যায়। অন্যদিকে, মুদিপণ্য কেনার পর এগুলো সংরক্ষণের জন্য ফ্রিজারের চেয়ে ফ্রিজের প্রয়োজনীয়তা বেড়ে যায়। এ ধরনের পরিস্থিতিতে, ফাইভ কনভারসন মোডগুলো বেশ সহায়ক ভ‚মিকা রাখে।

তাছাড়া, স্যামসাং-এর ‘এই ঈদে স্যামসাং কিনলেন তো জিতলেন’ ক্যাম্পেইনের অধীনে, গ্রাহকরা মিক্সার গ্রাইন্ডার, বেøন্ডার এবং আয়রন জিততে পারেন নির্দিষ্ট মডেলের সাইড-বাই-সাইড বা টুইন কুলিং ফ্রিজ কিনে। রেফ্রিজারেটরের দাম ৩৬,৯০০ টাকা থেকে শুরু, সাথে থাকছে ১১,০০০ টাকা পর্যন্ত ক্যাশব্যাক এবং ২৩,০০০ টাকা পর্যন্ত এক্সচেঞ্জ অফার।