কুষ্টিয়ায় যুবক হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

কুষ্টিয়ায় যুবক হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

শেয়ার করুন

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি :

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে হাফিজুল ইসলাম নামে এক যুবক হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত। যাবজ্জীবন দন্ডপ্রাপ্ত আসামী হলেন দৌলতপুর উপজেলার পাকুড়িয়া গ্রামের পঁচা সর্দারের ছেলে আসাদুল সর্দার। সেই সাথে আরো ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন আদালত।

সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টায় কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ১ম আদালতের বিজ্ঞ বিচারক রেজা মো. আলমগীর হাসান এ রায় প্রদান করেন। এ সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

কুষ্টিয়া আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দী জানান, ২০০৭ সালের ১৫ মার্চ বেলা সাড়ে ১১টায় জেলার দৌলতপুর উপজেলার পাকুড়িয়া গ্রামের আওয়াল মন্ডলের ছেলে হাফিজুল ইসলাম বাড়ির পাশের নিজের ভুট্টা ক্ষেত দেখার উদ্দেশ্য মাঠে যায়। এ সময় পুর্ব শত্রুতার জের ধরে একই গ্রামের আসাদুল সর্দার ও তার ভাই সাইদুল সর্দার হাফিজকে কুপিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যায়।

ঘটনার দিন নিহতের পিতা আওয়াল মন্ডল বাদী হয়ে আসাদুল সর্দার ও তার ভাই সাইদুল সর্দারকে আসামি করে দৌলতপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এদের মধ্যে সাইদুল সর্দারের মৃত্যু হওয়ায় তাকে অব্যাহতি দিয়েছেন আদালত। স্বাক্ষ্য প্রমানের ভিত্তিতে আসাদুল সর্দারের বিরুদ্ধে অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় আজ বিচারক তাকে যাবজ্জীবন কারাদন্ডের আদেশ দেন। পরে তাকে জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়।