তিন ফরম্যাটেই ফিরতে মরিয়া মুস্তাফিজ

তিন ফরম্যাটেই ফিরতে মরিয়া মুস্তাফিজ

শেয়ার করুন

Mustafizur Rahman

মুস্তাফিজুর রহমান শেষ টেস্ট খেলেছেন এক বছরেরও বেশি সময় আগে। ২০১৯ সালের মার্চে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওয়েলিংটন টেস্টের পর বাংলাদেশ টেস্ট দল থেকে বাদ পড়েছেন তিনি। জাতীয় দলের হয়ে ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টিতে অবশ্য নিয়মিত এই বাঁহাতি পেসার। টেস্ট দলেও ফেরার জন্য জোর ইচ্ছে আছে তার। সেই লক্ষ্যে কঠিন পরিশ্রমও করছেন। সোমবার মিরপুরে ক্রিকেট দলের দলীয় অনুশীলনের দ্বিতীয়দিনে নিজের সেই ইচ্ছের কথাই জানালেন তিনি।

মুস্তাফিজ বলছিলেন, ‘আমিতো চাই সব ফরম্যাটে খেলতে। এখন চেষ্টা করছি নিজেকে সেভাবেই প্রস্তুত করতে।  ফিটনেস বলেন, বোলিং স্কিল বলেন-সব বিষয়ে আমি কাজ করছি যাতে সব ফরম্যাটে নিয়মই হতে পারি।’
করোনাকালের এই সময়টায় বাকিদের চেয়ে একটু দেরিতেই মাঠে এসেছেন মুস্তাফিজুর রহমান। ঢাকায় এসেছেনই গত সপ্তাহে। শ্রীলঙ্কায় টেস্ট সিরিজের ২৭ সদস্যের প্রাথমিক দলে তার নাম রয়েছে। মূল দলে জায়গা হবে কিনা- সেটা জানা নেই তার। তবে জোরদার চেষ্টা চালাচ্ছেন সাদা পোষাকের ক্রিকেটে আবারো ফিরতে।

সাতক্ষীরায় করোনাকালের এই সময়টায় একাকী ক্রিকেট নিয়েই ব্যস্ত ছিলেন মুস্তাফিজ। বলছিলেন-‘আমি ঢাকা আসছি প্রায় এক মাস পাঁচ দিন হল। এখানে এসে প্রথমে শর্ট রান আপে, দুই তিন স্টেপে বোলিং করেছি, বাড়িতেও করেছি। এখানে আসার পর আবার প্রথম থেকে শুরু করলাম। শুরুতে রানিং, জিম এসব ছিল পরে একজন ব্যাটসম্যান ব্যাটিং করবে দুইজন বোলার বল করবে এভাবে শুরু হয়। এখন সবকিছু ভালোই যাচ্ছে। বাড়িতে অনুশীলনের ব্যাপারটা অন্যরকম। বাইরে যতই করেন না কেন (একক অনুশীলন) দলীয়ভাবে অনুশীলন করাটা আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ মনে হয়। বাড়িতে আমরা সবাই কম বেশি কাজ করেছি। এখানে শুরুতে কষ্ট হচ্ছিল একটু তবে এখন খুব ভালো যাচ্ছে।’

বোলিংয়ে নিজের শুরুর সময়ের সেই দক্ষতা, সেই তেজ একসময় প্রায় হারিয়ে ফেলেছিলেন মুস্তাফিজ। নতুন সময়ে আবার নিজের সেই পুরনো তেজে জ্বলে উঠার পণ করছেন তিনি- ‘করোনার আগে বোলিং কোচ গিবসন আমাকে কিছু গ্রিপ দেখিয়ে দিয়েছিল যে কী করলে বল ভেতরে ঢুকবে। ওটা নিয়ে কাজ করছি, এখনো ভালো যাচ্ছে। আরও কাজ করতে হবে, ভালোভাবে কাজ করতে পারলে ভেতরে ঢোকানোটা তাড়াতাড়ি আয়ত্ব করতে পারবো।’