মহিপাল ফ্লাইওভার চালু হওয়ায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের যানজট কমবে

মহিপাল ফ্লাইওভার চালু হওয়ায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের যানজট কমবে

শেয়ার করুন

মহিপাল ফ্লাইওভারনিজস্ব প্রতিবেদক :

দেশের প্রথম ছয় লেন ফ্লাইওভার চালু হওয়ায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনী অংশের যানজট নিরসন হবে। ফ্লাইওভারের নিচে চার সার্ভিস লেনও চালু থাকবে। ফলে, যাত্রী ভোগান্তি কমবে এবং দ্রুততর হবে পণ্য পরিবহন, এমনই আশার কথা জানালেন সংশ্লিষ্টরা।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ইঞ্জিনিয়ার কন্সট্রাকশন বিভাগেন তত্ত্বাবধানে মহিপাল ফ্লাইওভারের নির্মাণকাজ করেছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান আবদুল মোনেম লিমিটেড। ৬৬০ মিটার দীর্ঘ এবং ২৪ দশমিক ৬২ মিটার প্রশস্ত এই ফ্লাইওভারের নির্মাণকাজে ব্যয় হয়েছে প্রায় ১৮২ কোটি টাকা ।

২০১৫ সালে নির্মাণ কাজ শুরু হয়ে প্রকল্পটির মেয়াদ শেষ হওয়ার নির্ধারিত সময় ছিল ২০১৮ সালের জুন মাসে। কিন্তু অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি ব্যবহারের কারণে প্রায় ছয় মাস আগেই ফ্লাইওভারটির কাজ সম্পন্ন হয়ে যায়। আর তাই খুলে দেয়া হয় ফ্লাইভারটি।

ফ্লাইওভারটি চালুর ফলে ফেনীর সঙ্গে দেশের সকল স্থানের যোগাযোগ উন্নয়নের পাশাপাশি ব্যবসা-বাণিজ্যেরও প্রসার ঘটবে বলে মনে করছেন স্থানীয় সাংসদ নিজাম উদ্দিন হাজারী।

ফেনী মহিপালের চৌরাস্তা দিয়ে ফেনী-নোয়াখালীর আঞ্চলিক মহাসড়ক ও ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের যান চলাচল করায় এখানে যানযট ছিল নিত্যদিনের দৃশ্য। তাই অভিযোগেরও কমতি ছিলনা এলাকার মানুষের। তবে ফ্লাইওভার চালুর পর অনেকটাই খুশি এলাকাবাসী।