ঢাকায় পৌঁছেছেন শি জিনপিং

ঢাকায় পৌঁছেছেন শি জিনপিং

শেয়ার করুন

2016-10-14_10_112911নিজস্ব প্রতিবেদক :

তিন দশকের মধ‌্যে চীনের প্রথম প্রেসিডেন্ট হিসেবে দুদিনের রাষ্ট্রীয় সফরে বাংলাদেশে পৌঁছেছেন শি জিনপিং। কম্বোডিয়া থেকে বিশেষ বিমানে শুক্রবার বেলা ১১টা ৩৬ মিনিটে তাকে বহনকারী এয়ার চায়নার বিশেষ বিমানটি হযরত শাহ জালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের রান ওয়ে স্পর্শ করে।

বিমানবন্দরে চীনা রাষ্ট্রপতিকে স্বাগত জানান রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ। এসময় রাষ্ট্রীয় এই অতিথিকে ২১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে স্বাগত জানানো হয়। বিমান থেকে নামলে ফুল দিয়ে প্রেসিডেন্টকে বরণ করে নেওয়া হয়। পরে চীনের প্রেসিডেন্টকে সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনীর সদস্যদের সমন্বয়ে গঠিত একটি চৌকস দল গার্ড অব অনার প্রদান করেন। এ সময় বাজানো হয় দুই দেশের জাতীয় সংগীত। এসময় অর্থমন্ত্রী, বাণিজ্যমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রীসহ মন্ত্রিসভার কয়েকজন সদস্য বিমানবন্দরে উপস্থিত ছিলেন। বিমানবন্দর থেকে প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং হোটেল লা মেরিডিয়েনে চলে যান।

চীনা রাষ্ট্রপতি বিমান বন্দর থেকে হোটেল লা-মেরিডিয়ানে যাবেন। সেখানে কিছু্ক্ষন বিশ্রাম নিয়ে তিনি গন-ভবনে যাবেন প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সাক্ষাত করতে। বিকেলে তার সাথে দেখা করবেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এর পর সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে যাবেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদের দেয়া নৈশ ভোজে অংশ নিতে। বঙ্গভবনে চীনা রাষ্ট্রপতির সম্মানে এক সাংস্কুতিক অনুষ্ঠান হবে। তা উপভোগ করবেন জিনপিং।

শনিবার সকালে চীন রাষ্ট্রপতি সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে যাবেন মহান মুক্তিযুদ্ধে নিহত বীর সেনাদের স্মরণ করতে।

এই সফরকে মাইলফলক হিসেবে অভিহিত করা হচ্ছে। শি জিনপিং-এর এই সফরে অর্থনৈতিক ও বাণিজ্যিক সহযোগিতার পাশাপাশি যোগাযোগ, সন্ত্রাসবাদ দমন, সামুদ্রিক অর্থনীতি ও তথ্যপ্রযুক্তির বিষয়গুলো বিশেষ গুরুত্ব পাবে। চীনের প্রেসিডেন্টের সফরে দুই দেশ ২৫ টির মতো চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সইয়ের জন্য চূড়ান্ত করা হয়েছে।

তাঁর এই সফর উভয়দেশের মধ্যে নতুন যুগের সূচনা করবে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী। এদিকে, দেশের স্বার্থে ন্যায্যতার ভিত্তিতে কূটনৈতিক সম্পর্ক বজায় রাখা এবং চুক্তির ক্ষেত্রে সতর্কতা অলম্বনের পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।