বন্যার্তদের সহায়তায় এগিয়ে আসুন ‘লাল সবুজ ফাউন্ডেশনের’ সাথে

বন্যার্তদের সহায়তায় এগিয়ে আসুন ‘লাল সবুজ ফাউন্ডেশনের’ সাথে

শেয়ার করুন

বন্যা 3নিজস্ব প্রতিবেদক:

উত্তর বঙ্গের উপর দিয়ে বয়ে যাচ্ছে ভয়াবহ বন্যা। এখন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা পঞ্চাশের অধিক। আর গৃহহারা প্রায় ৩৩ লক্ষ মানুষ। অনেকের ঘর-বাড়ি ভেসে গেছে বন্যার পানির সাথে। সাথে ভেসে গেছে নিত্য প্রয়োজনীয় সব জিনিস পত্র।

অনেকের ঘর বাড়ি ঠিক থাকলেও পানি ওঠার কারণে ঘরছাড়া হতে হয়েছে। দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলার হালিমা বেগম (ছদ্ম নাম)। তিনি জানান, পানি ওঠার কারণে ৩ দিন বাসার বাইরে। থাকছেন পাশের সরকারি পোস্ট অফিসের ২য় তলায় অনেকের সাথে গাদাগাদি করে। এরকম অবস্থা সবারই। অনেকের আরও ভয়াবহ অবস্থা। পাচ্ছে না পর্যাপ্ত খাবার।

এ অবস্থায় উত্তর বঙ্গের মানুষের প্রয়োজন সাহায্যের। অনেকে অনেক ভাবে সাহায্য করলেও সঠিক তদারকির অভাবে আর বিচ্ছিন্ন সহোযোগিতার কারণে সঠিক মানুষের হাতে ত্রাণ পৌছায়না। এ জন্য ‘লাল সবুজ ফাউন্ডেশন’ নামে একটি অলাভ জনক সংস্থা নিয়েছে একটি মহৎ উদ্যেগ।

এ সংস্থার প্রেসিডেন্ট আব্দুর রহমান জানান, আমরা একক ভাবে সাহায্য করলে হয়ত অনেক কম হয়ে যাবে। সাহায্য করতে পারব, হয়ত যতটুক করা প্রয়োজন ততটুকু পারবনা। তাই আমরা কয়েকটি সামাজিক সংগঠনের সাথে জোট বেঁধে অনুদান সংগ্রহ করে সাহায্য করার পরিকল্পনা করেছি। এজন্য তিনি সমাজের অসহায় মানুষদের নিয়ে কাজ করা সংগঠনগুলোকে আহ্বান জানাচ্ছেন যেন লাল সবুজ ফাউন্ডেশনের সাথে জোট বেঁধে বন্যার্তদের পাশে দাঁড়ায়।

ইতিমধ্যে লাল সবুজ ফাউন্ডেশন বন্যার্তদের সহযোগিতার জন্য অনুদান সংগ্রহ করার কাজে নেমে গেছে। সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষ যাতে সহজেই যেকোনো স্থান থেকে অনুদান পাঠাতে পারে এজন্য সংগঠনটির পক্ষ থেকে তিনটি বিকাশ সরবারাহ করা হয়েছে। নাম্বার গুলো হল- 01682609763 01819903343 01684909033। তিনটি নাম্বারই বিকাশ পার্সনাল।

আর সবাইকে সহোযোগিতার আহ্বান জানিয়ে সংস্থার ভাইস প্রেসিডেন্ট কামরুদ্দিন চৌধুরী বলেন, সমাজের বিত্তবান হতে শুরু করে সকলের সহযোগিতা পেলে আমরা উত্তর বঙ্গের বন্যার্ত মানুষদের কিছুটা হলেও সাহায্য করতে পারব। এতে তাদের কষ্ট কিছুটা হলেও লাঘব হবে। তাই আমি সকলকে আহ্বান করব লাল সবুজ ফাউন্ডেশনের আহ্বানে সাড়া দিয়ে উত্তর বঙ্গের বন্যার্তদের পাশে এগিয়ে আসুন।

সংগঠনটির পক্ষ থেকে জানানো হয়, বিভিন্ন সংগঠন এগিয়ে আসলে খুব দ্রুত ফেসবুকে ইভেন্টের মাধ্যমে বিস্তারিত সব জানানো হবে। আপনিও এগিয়ে আসুন, আপনার অল্প সাহায্যেই হাঁসি ফুটে উঠবে কোনো বন্যা কবলিত মানুষের।