এইডস আক্রান্ত ৯৭ রোহিঙ্গাকে চিহ্নিত করা হয়েছে

এইডস আক্রান্ত ৯৭ রোহিঙ্গাকে চিহ্নিত করা হয়েছে

শেয়ার করুন

রোহিঙ্গানিজস্ব প্রতিবেদক :

কক্সবাজারের শরণার্থী ক্যাম্পে মরণব্যাধি এইচআইভি- এইডসে আক্রান্ত ৯৭ জন রোহিঙ্গাকে চিহ্নিত করা হয়েছে। সরকারি-বেসরকারি সংস্থাগুলোর হিসেবে, এ সংখ্যা পাঁচ হাজার ছাড়িয়ে যেতে পারে। কঠোর নিয়ন্ত্রণ ও নজরদারি না থাকলে, এ্ইডস ঝুঁকিতে পড়বে পর্যটন নগরী কক্সবাজার, এমন কি দেশও।

এইডস ঝুঁকিতে রয়েছে প্রতিবেশী দুই দেশ- মিয়ানমার ও ভারত। আ্ন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর গবেষণা বলছে, মিয়ানমারের মোট জনসংখ্যার ৭ শতাংশ এইচআইভি শরীরে বহন করছে। বাংলাদেশের আশ্রয় শিবিরে রয়েছে প্রায় ৭ লাখ রোহিঙ্গা। সে হিসেবে, কক্সবাজারের প্রায় ৫ হা্জার রোহিঙ্গা এইডস আক্রান্ত থাকার শঙ্কা রয়েছে। তারা স্থানীয়দের সঙ্গে মিশে গেলে, মারাত্মক এইডস ঝুঁকিতে পড়তে পারে দেশ।

রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এইডস রোগীদের এখনই শনাক্ত করতে না পারলে এবং তাদের মেলামেশা নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে, এর মন্দ-প্রভাব পড়বে কক্সবাজারের পর্যটন শিল্পেও। রোহিঙ্গাদের নির্দিষ্ট ক্যাম্পে রাখতে কঠোর নজরদারি দাবি করছেন এ খাতের ব্যবসায়ীরা।

বিশ্ব এইডস দিবসে গুরুত্ব পাচ্ছে বিষয়টি। এ পর্যন্ত কক্সবাজারে সদর হাসপাতালের রোহিঙ্গা সেবা কেন্দ্রে ৯৭ জনকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তাদের মধ্যে নারী জন নারী ও ৩৩ জন পুরুষ রোগী। ১৫টি শিশুও এই ভাইরাস বহন করছে। চিকিৎসকরা বলছেন, এইচআইভি বহনকারী রোহিঙ্গাদের শনাক্তের কাজে সরকার আন্তরিক।