অ্যাডভেঞ্চার প্রেমীদের স্বর্গরাজ্যে

অ্যাডভেঞ্চার প্রেমীদের স্বর্গরাজ্যে

শেয়ার করুন

dark december 1

ডেস্ক রিপোর্ট:

রাশিয়ায় ডিসেম্বর মানেই তুলোর মতো তুষারপাত। হিমাংকের নীচে তাপমাত্রা থাকলেও সূর্যের উজ্জল আলোয় কখনো স্লেজ গাড়িতে ছুটে চলা। অথবা দুরন্ত গতিতে স্কেটিং। অ্যাডভেঞ্চার প্রেমীদের স্বর্গরাজ্যে পরিনত হয় রাজধানী মস্কোসহ গোটা দেশ।

কিন্তু গত ডিসেম্বরে মাসজুড়েই মুখ ভার ছিলো আকাশের। ঘন মেঘের আস্তর ভেঙে ঝরেনি এক ফোঁটা তুষারও।

সারা মাসে মাত্র ৬ মিনিট সুর্য্যের আলো। ভাবা যায়? রুশ রাজধানী মস্কোর বাসিন্দাদের কাছে এটা ভাববার কোন বিষয় না। এ ঘটনার স্বাক্ষি হয়েছেন তারা গত ডিসেম্বরে। তারা ২০১৭ সালের ডিসেম্বরকে ডাকছেন দ্য ডার্ক ডিসেম্বর নামে। দিনের পর দিন ঘন মেঘের আড়ালে মুখ লুকিয়ে আছে সূর্য। এরই মধ্যে জীবন জীবিকার সন্ধানে ছুটে চলা।

ডিসেম্বরের শেষ নাগাদ এক সন্ধ্যায় মস্কোর পশ্চিম আকাশে উঁকি দিয়েছিল সোনালী এক চিলতে বাঁকা চাঁদ। তাও কয়েক মুহূর্তের জন্য। মস্কোর খুব কম মানুষের চোখেই ধরা পড়েছে সেটা। যারা একবার সেই চাঁদ দেখেছেন, দ্বিতীয়বার চোখ ফেরাতেই তা অদৃশ্য হয়ে গেছে মেঘের আড়ালে।

dark december

২০০০ সালে এরকম এক অভিজ্ঞতা হয়েছিল মস্কোবাসীর। সেবার ডিসেম্বর জুড়ে তিন ঘন্টার জন্য সুর্য উঠেছিল মস্কোর আকাশে। এবারের পরিস্থিতি তার চেয়ে আরো ভয়াবহ। মাত্র ছয় মিনিট। তবে এর জন্য আটলান্টিক মহাসাগরে ঘনিভূত নিম্নচাপকে দায়ি করেছে আবহাওয়া দপ্তর।

এই নিম্নচাপের কারণেই মস্কোর আকাশে ঘন মেঘের ঘনঘটা। আবহাওয়া দপ্তর বলছে, গত বেশ কয়েক বছরের তুলনায় মস্কোর এ সময়ের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের তুলনায় কিছুটা বেশী। সর্বনিম্ন তামপাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৫ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলশিয়াস। স্বাভাবিকভাবেই তুষারপাতও ঘটছে না এবার।

সাধারণত দেখা যায়, প্রতিবছর বড়দিনের সময় এখানকার মানুষ মেতে ওঠেন শ্লেজিং, স্কেটিং-এ। আয়োজিত হয় নানা বরফ উৎসবের। কিন্তু এবার গোটা