পটুয়াখালীতে ট্রিপল মার্ডার: এক সপ্তাহেও গ্রেপ্তার হয়নি আসামী!

পটুয়াখালীতে ট্রিপল মার্ডার: এক সপ্তাহেও গ্রেপ্তার হয়নি আসামী!

শেয়ার করুন

এটিএন টাইমস ডেস্ক:

এক সপ্তাহেও গ্রেপ্তার হয়নি, পটুয়াখালীর বাবা-মা ও মেয়ের হত্যাকারীরা। নিহতদের পরিবারের দাবি, একটি হত্যার মামলা স্বাক্ষী থাকায় তাদের পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে।

পটুয়াখালীর গলাচিপার আমখোলা ইউনিয়নের ছৈলাবুনিয়া গ্রামের দেলোয়ার হোসেন মোল্লা, তার স্ত্রী পারভীন বেগম এবং মেয়ে কাজলি আক্তারকে ১ আগস্ট গভীর রাতে কুপিয়ে ও গলা কেটে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। পরদিন তাদের বসতবাড়ি থেকে মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহতের পরিবার জানায়, দেলোয়ার হোসেন মোল্লার পরিবারের সঙ্গে স্থানীয় মাইনুদ্দিন ও মোকারফদের জমি নিয়ে বিরোধ ছিল। তারই জের ধরে, গত ১১ ফেব্রুয়ারি মাইনুদ্দিন গ্রুপ প্রকাশ্যে দেলোয়ারের ভাই ইদ্রিস মোল্লার ছেলে দশম শ্রেণির ছাত্র শফিককে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করে।

এ ঘটনায় মাইনুদ্দিনসহ ২০ জনকে আসামি করে গলাচিপা থানায় হত্যা মামলা হয়। শফিক হত্যা মামলার স্বাক্ষী ছিলেন দেলোয়ার, তাঁর স্ত্রী পারভীন বেগম এবং মেয়ে কাজলি আক্তার।

নিহতের ভাই ইদ্রিস মোল্লা বাদি হয়ে অজ্ঞাতদের আসামি করে গলাচিপা থানায় হত্যা মামলা করেন। মামলা তুলে নেবার অব্যাহত হুমকির মুখে ইদ্রিস মোল্লা বাড়ি ছেড়েছেন। চাঞ্চল্যকর এই ট্রিপল মার্ডার তদন্ত করছে গোয়েন্দা পুলিশ। হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তারের আশ্বাস দিয়েছেন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।