দেশ প্রধানমন্ত্রীর পদক্ষেপের প্রশংসায় প্রিন্স চার্লস

দেশ প্রধানমন্ত্রীর পদক্ষেপের প্রশংসায় প্রিন্স চার্লস

শেয়ার করুন

 

Hasina-charls

করোনা ভাইরাস থেকে দ্রুত আরোগ্য কামনা করে চিঠি লেখায় ওয়েলসের যুবরাজ প্রিন্স চার্লস প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর কাছে লেখা এক চিঠিতে প্রিন্স চার্লস বলেন, ‘আপনার অত্যন্ত সদয় উদ্বেগের পত্রটি এবং এই প্রাণঘাতি ভাইরাস থেকে আমার আরোগ্য কামনায় আপনার শুভেচ্ছা আমাকে দারুনভাবে স্পর্শ করেছে।’
প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম বলেন, চিঠিতে প্রিন্স চার্লস প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছেন তিনি এখন অনেক ভাল আছেন।

তিনি বলেন, ‘আমি এখন অনেক ভাল আছি এবং আমি জানি আপনি কতটা ব্যস্ত। এই ব্যস্ততার মধ্যেও চিঠি লেখার জন্য আমি আপনার প্রতি কৃতজ্ঞ।’

বাংলাদেশে প্রাণঘাতি করোনাভাইরাস দমনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গৃহীত পদক্ষেপের প্রশংসা করেন প্রিন্স চার্লস।

তিনি বলেন, ‘আমি এটা শুনে সবচেয়ে বেশি অভিভুত হয়েছি যে, আপনি এই মারাত্মক রোগের প্রাদুর্ভাব প্রাথমিক পর্যায়ে কিভাবে সংক্রমণ আটকে রাখতে সক্ষম হয়েছেন এবং মৃত্যুও সংখ্যাটি কমে আটকে রেখেছেন।’

এই সংকটময় সময়ে যুক্তরাজ্যে বৃটিশ-এশীয় প্রবাসীরা একে অপরকে সাহায্য করতে কিভাবে একসঙ্গে কাজ করছেন তাও উল্লেখ করেন প্রিন্স চার্লস।

তিনি বলেন, ‘বৃটিশ-এশীয়দের মধ্যে অনেকেই কোভিড-১৯ সংকট মোকাবেলায় জাতীয় স্বাস্থ্য সেবাতে (ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিস) কাজ করছেন। তারা একে অপরকে এবং বৃহত্তর সম্প্রদায়কে বিশেষ করে ধর্মীয়ভাবে বিশ্বাসী মন্দির, মসজিদ এবং গুরুদয়ারা সমন্বিতভাবে চেষ্টা করছেন।’

প্রিন্স চার্লস জলবায়ূ পরিবর্তন ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কাজ করার গভীর আগ্রহ প্রকাশ করে বলেন, আমি প্রার্থনা করি যে এই বিশ্বসংকট চলে গেলে আমরা জৈব অর্থনীতির বলয় তৈরির মাধ্যমে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলার মত জরুরি কাজে আমাদের অঙ্গীকার নতুন করে এগিয়ে নিয়ে যাব, যা প্রকৃতি ও কমিউনিটিগুলোকে এর কেন্দ্রে নিয়ে আসবে এবং পৃথিবীতে একটি নিরাপদ স্থান হিসেবে গড়ে তোলায় সক্ষম হবে।

এর আগে গত ২৮ মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এক চিঠিতে প্রিন্স চার্লন কোভিড ১৯-এ আক্রান্ত হওয়ায় গভীর সহমর্র্মিতা প্রকাশ করেছিলেন।

চিঠিতে তিনি বলেছিলেন নোভেল করোনাভাইরাসের বিস্তার এবং এর পরবর্তী পরিস্থিতি রোধে লড়াইয়ে বাংলাদেশ যুক্তরাজ্যের প্রবাসীদের সঙ্গে কাজ করতে প্রস্তুত।

শেখ হাসিনা তার পত্রে প্রিন্স চার্লসকে বাংলাদেশ কোভট-১৯ ভাইরাস পরিস্থিতি এবং প্রাণঘাতি এই ভাইরাস থেকে বাংলাদেশের জনগণকে রক্ষায় প্রতিরোধমূলক কি ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে তা জানিয়েছিলেন।