করোনা আক্রান্ত ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে শেখ হাসিনার সমবেদনা

করোনা আক্রান্ত ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে শেখ হাসিনার সমবেদনা

শেয়ার করুন

Hasina-borish

 

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের প্রতি সহমর্মিতা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল (২৮ মার্চ) এক বিবৃতিতে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর সুস্থতা কামনা করে তিনি বলেন, ‘আমি তার দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি।’
করোনা মোকাবিলায় যুক্তরাজ্যের সঙ্গে বাংলাদেশ কাজ করতে প্রস্তুত বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী। যুক্তরাজ্যে আক্রান্তদের মধ্যে প্রিন্স চার্লস, প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হানকক-ও রয়েছেন। বর্তমান রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ এবং প্রিন্স ফিলিপ দম্পতির জ্যেষ্ঠ পুত্র প্রিন্স চার্লস। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর তিনি স্কটল্যান্ডে সেল্ফ আইসোলেশনে রয়েছেন।

বরিস জনসনক নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা প্রত্যেকেই এই প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের সঙ্গে লড়াই নিয়ে ব্যস্ত। আমি এই লড়াইয়ে আপনার সুদক্ষ নেতৃত্ব ও লকডাউনের মতো সাহসী পদক্ষেপগুলো পর্যবেক্ষণ করেছি।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, এই প্রাণঘাতী ভাইরাস নিয়ে বৈশ্বিক যে অস্থিরতা তৈরি হয়েছে সেটাতে প্রথম থেকেই আমাদের সরকার সতর্ক ছিল। আমরা বিমানবন্দরেই সবার দেহে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পরীক্ষা করেছি। এছাড়া জানুয়ারি মাস থেকেই কোয়ারেন্টিন জোন তৈরির কাজ শুরু হয়ে যায়।

কোভিড-১৯ নামের এই ভাইরাস ঠেকাতে একটি উচ্চপর্যায়ের জাতীয় কমিটি গঠন করা হয়েছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা হাসপাতাল সংস্কার ও প্রস্তুত করেছি। আমাদের স্বাস্থ্য কর্মীদের পর্যাপ্ত প্রশিক্ষণ ও সরঞ্জাম সরবরাহ করেছি।

বিবৃতিতে শেখ হাসিনা আরও বলেন, সংক্রমণ ঠেকাতে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করা হয়েছে। সংক্রমণের ঝুঁকিতে থাকা এলাকাগুলো লকডাউন করা হয়েছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে পূর্ব পরিকল্পিত অনেক অনুষ্ঠান বাতিল করা হয়েছে, যেন জনসমাগম এড়ানো যায়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা জরুরি সেবা সংস্থা ছাড়া সব সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ২৫ তারিখ থেকে ১০ দিনের সাধারণ ছুটি দিয়েছি। আমাদের দল ও সরকারের পক্ষ থেকে এই রোগের বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধিতে কাজ চলছে।

শেখ হাসিনা বলেন, এখন পর্যন্ত ৪৮ জন করোনা আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে। তাদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে পাঁচ জনের। এছাড়া সম্পূর্ণ সুস্থ হয়েছেন ১১ জন। ভাইরাসের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় যুক্তরাজ্যের সঙ্গে বাংলাদেশ কাজ করতে প্রস্তুত রয়েছে বলেও জানান তিনি।