রিজার্ভ চুরির ঘটনায় রিজল ব্যাংকের বিরুদ্ধে মামলার পরিকল্পনা

রিজার্ভ চুরির ঘটনায় রিজল ব্যাংকের বিরুদ্ধে মামলার পরিকল্পনা

শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক:

বাংলাদেশের রিজার্ভ চুরির ঘটনায় ভূমিকার জন্য ফিলিপিন্সের রিজল কমার্সিয়াল ব্যাংকের বিরুদ্ধে মামলা করার পরিকল্পনা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ও সুইফটের সঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংক আলোচনা করেছে বলে খবর দিয়েছে রয়টার্স।

এক প্রতিবেদনে বার্তা সংস্থাটি জানিয়েছে, নিউ ইয়র্কের ফেডারেল রিজার্ভ কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক কোনো বক্তব্য দেয়নি। গতমাসে এক কনফারেন্স কলে রিজলের বিরুদ্ধে মামলা করার পরিকল্পনা নিয়ে নিউ ইয়র্ক ফেডের কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করেন বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা।

ব্যাংকিং লেনদেনের আন্তর্জাতিক মেসেজিং নেটওয়ার্ক সুইফটের দুজন প্রতিনিধিও ছিলেন ওই আলোচনায়। ওই আলোচনা সম্পর্কে সরাসরি ধারণা রয়েছে এমন তিন বাংলাদেশি কর্মকর্তার বরাতে রয়টার্স জানিয়েছে, রিজলের বিরুদ্ধে মামলা করার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক নিউ ইয়র্ক ফেডে একটি প্রস্তাব পাঠাবে বলে সিদ্ধান্ত হয় ওই বৈঠকে। প্রাথমিক পরিকল্পনা অনুযায়ী, চুরি যাওয়া টাকা উদ্ধারের জন্য আগামী মার্চ-এপ্রিল নাগাদ ওই দেওয়ানি মামলাটি করা হবে নিউ ইয়র্কে।

বাংলাদেশ ব্যাংক কোনো লিখিত প্রস্তাব পাঠালে তা বিবেচনা করে দেখা হবে বলে ওই বৈঠকে আশ্বাস দেন নিউ ইয়র্ক ফেডের কর্মকর্তারা। ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারির শুরুতে সুইফট মেসেজিং সিস্টেমের মাধ্যমে ৩৫টি ভুয়া বার্তা পাঠিয়ে ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউ ইয়র্কে রক্ষিত বাংলাদেশের এক বিলিয়ন ডলার সরিয়ে ফেলার চেষ্টা হয়। এর মধ্যে পাঁচটি মেসেজে ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার যায় ফিলিপিন্সের আরসিবিসিতে।