হাওরের পর এবার ডুবতে শুরু করেছে উজানের ফসল

হাওরের পর এবার ডুবতে শুরু করেছে উজানের ফসল

শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক :

হাওরের পর এবার ডুবতে শুরু করেছে উজানের ফসল। কয়েক দিনের ভারি বর্ষনে তলিয়ে গেছে বেশির ভাগ ফসল। হুমকির মুখে আছে আরও কয়েক হাজার হেক্টর ফসলি জমি।

চলতি বোরো মওসুমে হবিগঞ্জ জেলার ৮টি উপজেলায় ১ লাখ ১৬ হাজার ৫১০ হেক্টর জমিতে বোরো আবাদ হয়েছিল। এপ্রিলের শুরুতে ভারি বৃষ্টিতে জেলার হাওর এলাকার প্রায় ৩৫ হাজার হেক্টর জমি তলিয়ে যায়। বাকি জমি জলমগ্ন হচ্ছে এখন।

জেলার ৫০ হাজার হেক্টর জমির বোরো ফসল সম্পূর্ণ নষ্ট হয়ে গেছে। বেশি ক্ষতি হয়েছে বানিয়াচং, লাখাই ও আজমিরীগঞ্জ উপজেলা। নিরুপায় কৃষক কাঁচা ও আধাপাকা ধানই কাটছেন এখন।

প্রতিদিনই নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে। এ জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডকে দায়ী করেছেন ক্ষতিগ্রস্তরা।

কিশোরগঞ্জের তাড়াইল। কয়দিন আগেও এখানে দোল খেয়েছে সোনালী ধান। এখন অথৈ পানি। বাঁধ ভেঙ্গে তলিয়ে গেছে  উপজেলার ৮ হাজার হেক্টর জমির ধান। হুমকির মুখে রয়েছে আরও কয়েক হাজার হেক্টর ধানী-জমি।

কৃষি বিভাগের তথ্য মতে, ৫৭ হাজার হেক্টর জমি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে ক্ষতিগ্রস্তদের দাবি অন্তত ৮০ হাজার হেক্টর  জমির ধান তলিয়েছে কিশোরগঞ্জে । শুরু হয়েছে খাদ্য সংকট। এ পরিস্থিতি তীব্র হবে বলে আশংকা দুর্গতদের।

এ বছর শরীয়তপুরে ২৮ হাজার ১শ ৬০ হেক্টর জমিতে বোরো আবাদ হয়েছে। পাটের আবাদ হয়েছে ২৮ হাজার ৩শ ২০ হেক্টর জমিতে।ভারী বর্ষনে তলিয়ে গেছে বেশির ভাগ পাট ও বোরো ধান। বর্ষনের এ প্রবণতা অব্যাহত থাকলে বোরো আবাদের বড়  ক্ষতি হবে, এমন আশঙ্কা কৃষকদের।