মাধবপুরে মৌলানা আসাদ আলী ডিগ্রি কলেজে অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের ফরম ফিলাপের বাড়তি...

মাধবপুরে মৌলানা আসাদ আলী ডিগ্রি কলেজে অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের ফরম ফিলাপের বাড়তি ফি আদায়ের অভিযোগ

শেয়ার করুন
received_243610490818506
।। মোঃজুলহাস উদ্দিন রিংকু, মাধবপুর (হবিগঞ্জ)।।
হবিগঞ্জের মাধবপুরে মৌলানা আসাদ আলী ডিগ্রি কলেজে অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ছাত্রীদের কাছ থেকে ফরম ফিলাপের অতিরিক্ত টাকা আদায় করছে এমন অভিযোগ উঠেছে কলেজ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে।
করোনা মহামারীর কারনে দীর্ঘ সময় স্কুল কলেজ বন্ধ থাকার পর গত কিছুদিন আগে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের ফরম ফিলাপের তারিখ উল্লেখ্য করে নির্ধারিত তারিখের ভীতরে স্ব স্ব কলেজে গিয়ে ফরম ফিলাপ করতে বলা হয়। তাই ১৪ আগষ্ট শনিবার সকালে মৌলানা আসাদ আলী ডিগ্রি কলেজের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র-ছাত্রীরা ফরম ফিলাপের জন্য কলেজে গিয়ে দেখতে পারে যে ফরম ফিলাপের জন্য ফি ১২৭৫০ টাকা নির্ধারন করা হয়েছে। যা অন্যান্য কলেজের তুলনায় বেশি।
অতিরিক্ত ফি নির্ধারণ করায় এবং ফরম ফিলাপের ফি কমাতে আগত ছাত্র-ছাত্রীরা বিক্ষোভ করে। বাড়তি ফি আদায়ের প্রতিবাদে তারা কলেজের শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে অবস্থান করে। ফি কমানোর জন্য ছাত্র-ছাত্রী কর্তৃক একটি লিখিত দরখাস্ত কলেজের অধ্যক্ষ মোঃজহির উদ্দিনের বরাবর দিলে প্রথমে তিনি দরখাস্ত গ্রহন করতে অস্বীকৃতি জানায়।পরে ছাত্র-ছাত্রীদের আন্দোলনে বাধ্য হয়ে দরখাস্ত গ্রহন করেন।
মৌলানা আসাদ আলী ডিগ্রি কলেজের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র শাকিল খান আশরাফুল জানান,সকালে কলেজে ফরম ফিলাপ করতে এসে দেখি ফরম ফিলাপের জন্য বাড়তি টাকা নিচ্ছে কলেজ কর্তৃপক্ষ।কিন্তু প্বার্শবর্তী অন্যান্য কলেজে ফরম ফিলাপের ফি আরো কম নিচ্ছে।কিন্তু আমাদের কলেজেই এই ফি বেশি নিছে। ফি বেশি নেয়ার ব্যাপারে কলেজের অধ্যক্ষ মোঃজহির উদ্দিনের কাছে জানতে চাইলে তিনি অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন আমরা নির্ধারিত ফি নিচ্ছি। আমাদের কলেজ হচ্ছে একটি বেসরকারি কলেজ। আমাদের কলেজের অনার্সের শিক্ষকদের সরকারিভাবে কোন বেতন দেয়া হয় না বিধায় আমাদের কলেজের বেতন একটু বেশি।