পরকিয়ায় বাধা দেয়ায় স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

পরকিয়ায় বাধা দেয়ায় স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

শেয়ার করুন

এম কামরুজ্জামান, সাতক্ষীরা প্রতিনিধি :

পরকিয়ায় বাধা দেয়ায় সাতক্ষীরার আশাশুনিতে স্বামী কর্তৃক স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার রাতে আশাশুনির উপজেলার বড়দল ইউনিয়নের জেলপেটুয়া গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে।

নিহতের নাম দিপালী মন্ডল (২৫)। তিনি আশাশুনি উপজেলার বাঁকড়া গ্রামের নির্মল সরকারের মেয়ে ও জেলপেটুয়া গ্রামের মনোজিত কুমার মন্ডলের স্ত্রী ।

নিহত দিপালী মন্ডলের বাবা নির্মল সরকার জানান, ৭ বছর আগে আমার মেয়ে দিপালীর সাথে বড়দল ইউনিয়নের জেলপেটুয়া গ্রামের মনোজিতের হিন্দু ধর্মীয় অনুসারে বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাদের ঘরে একটি পুত্র সন্তানের জন্ম হয়। যার বয়স এক বছর। তিনি জানান, সম্প্রতি আমার জামাই মনোজিত মন্ডল প্রতিবেশী গোয়ালডাঙ্গা গ্রামের তপন মন্ডলের মেয়ে মিতালী মন্ডলের সাথে পরকিয়ায় জড়িয়ে পড়ে। বিষয়টি জানাজানির এক পর্যায়ে আমার মেয়ে দিপালী তার পরকিয়ায় বাধা দেয়। এতে সে ক্ষিপ্ত হয়ে মঙ্গলবার রাতে আমার মেয়ে দিপালীকে পিটিয়ে হত্যা করে। এরপর বিষয়টি সে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য তার গলায় রশি দিয়ে ঝুলিয়ে আতœহত্যা বলে প্রচার দেয়। তিনি আরো জানান, এ ঘটনার পর থেকে আমার জামাই মনোজিত পলাতক রয়েছে।

আশাশুনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিপ্লব কুমার নাথ জানান, গৃহবধূ দিপালী মন্ডলের লাশ উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, আপাতত এখন একটি অপমৃত্যুর মামলা নেয়া হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের পর পিটিয়ে হত্যার বিষয়টি প্রমানিত হলে পরে হত্যা মামলা নেয়া হবে।